Sagor Laboni

নতুন পে-স্কেল জানুয়ারিতেই 2015

on 06/12/2015

 

আগামী সপ্তাহের প্রথম দিন রবিবার অথবা সোমবারে নতুন পে-স্কেলের গেজেট প্রকাশ করা হবে। সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ঘোষিত নতুন এ বেতন কাঠামো বাস্তবায়ন শুরু হলে প্রথম মাস হিসেবে আগামী জানুয়ারিতেই সরকারের অতিরিক্ত প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকার প্রয়োজন হবে বলে জানা গেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ভেটিং শেষে পে-স্কেলের ফাইল এরই মধ্যে অর্থমন্ত্রীর কাছে ফিরে এসেছে। গতকালই অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত তা দেখে অর্থ সচিব মাহবুব আহমেদের কাছে পাঠিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ চিকিত্সার জন্য এখন সিঙ্গাপুরে রয়েছেন। আগামী শনিবার তার দেশে ফেরার কথা। সেদিনই তিনি পে-স্কেলে স্বাক্ষর করলে তা গেজেটের জন্য প্রেসে পাঠানো হবে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, ‘গত মঙ্গলবার থেকে আইন মন্ত্রণালয়ের ভেটিং শেষে গেজেট প্রকাশ হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছি। কেন যে দেরি হচ্ছে! আশা করি দু-এক দিনের মধ্যে হয়ে যাবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এটা খুবই দুঃখজনক, এত সময় লাগছে।

1

এ যাবত্কালে যতগুলো পে-স্কেল হয়েছে তার মধ্যে এবারই সবচেয়ে বেশি সময় লাগল। অত্যন্ত জটিল একটি পে-স্কেল। সব দিক সামলাতে গিয়ে এ সমস্যা হয়েছে।’ নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, বেতন-ভাতা নির্ধারণ ও পে-স্কেল বাস্তবায়নের জন্য অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিজ নিজ পদ অনুযায়ী অনলাইনে অর্থ বিভাগের নির্ধারিত ফরম পূরণ করতে হবে। যার ওপর ভিত্তি করে তাদের বেতন ছাড় করা হবে। অর্থ বিভাগের একটি সূত্র জানায়, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য ঘোষিত নতুন বেতন কাঠামো বাস্তবায়ন শুরু হলে প্রথম মাস হিসেবে আগামী জানুয়ারিতেই সরকারের অতিরিক্ত প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকার প্রয়োজন হবে। জুলাই-২০১৫ থেকে কার্যকর দেখানো হলে ছয় মাসেই এরিয়ার দিতে হবে জানুয়ারি মাসের বেতনের সঙ্গে। ফলে প্রথম মাসের বেতন-ভাতাসহ আগের ছয় মাসের বেতন-ভাতা মিলিয়ে ৮ হাজার ৯০০ কোটি টাকার প্রয়োজন হবে। নতুন পে-স্কেলে ২১ লাখ কর্মকর্তা-কর্মচারীর বেতন-ভাতা দিতে প্রতি মাসে খরচ হবে ১ হাজার ৩০০ কোটি টাকা। আর এ টাকার জোগান পেতে রাজস্ব আদায় আরও বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছে অর্থ বিভাগ। জানা গেছে, চলতি অর্থবছরের মোট বাজেট বরাদ্দের ২০ শতাংশই ব্যয় হবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য অনুমোদিত অষ্টম পে-স্কেল বাস্তবায়নে। আর আগামী বছর বেতনের সঙ্গে অন্যান্য ভাতা পরিশোধে ব্যয়ের এ হার বেড়ে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত দাঁড়াতে পারে। নতুন পে-স্কেল বাস্তবায়ন হলে মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় ও মান দুটিই বাড়বে।

https://sagorlaboni.wordpress.com

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: